দৈনিক ৫ ওয়াক্ত ওজুর কারণে মুসলমানরা কম সংক্রমিত হচ্ছে-ট্রেভর ফিলিপ্স!

করোনাভাইরাসে অচল গোটা বিশ্ব। পুরো বিশ্ব বর্তমানে থমকে দাঁড়িয়েছে এই এক ভাইরাসের তান্ডবের কারণে। যুক্তরাজ্যে করোনায় সবচেয়ে কম সংক্রমিত হয়েছে.

করোনাভাইরাসে অচল গোটা বিশ্ব। পুরো বিশ্ব বর্তমানে থমকে দাঁড়িয়েছে এই এক ভাইরাসের তান্ডবের কারণে। যুক্তরাজ্যে করোনায় সবচেয়ে কম সংক্রমিত হয়েছে মুসলমানরা। যার কারণ খতিয়ে দেখছে গবেষকরা। তাদের দাবি, দৈনিক ৫ ওয়াক্ত নামাজের জন্য প্রয়োজন নিয়ম মতো হাত পরিষ্কার করার বিষয়টিকে করোনা সংক্রমণ কম হওয়ার অন্যতম কারণ বলে মনে করছে তারা।

নিউক্যাসল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রিচার্ড ওয়েবার এবং লেখক ও লেবার পার্টির প্রাক্তন রাজনীতিবিধ ট্রেভর ফিলিপ্সর এর একটি প্রতিবেদনে প্রকাশ পায়, যেসব অঞ্চলে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা করা যেতে পারে, সেখানে মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে সংক্রমণের হার কম এবং সাংস্কৃতিক অভ্যাসগুলো ইংল্যান্ডের মুসলমানদের দ্রুত সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে পারে।

রাজনীতিবিধ ট্রেভর ফিলিপ্স টাইমস এর একটি নিবন্ধনে লিখেছেন, হয়তো এখানে প্রকাশ করা আবশ্যক, যদি ভাইরাসের সংক্রমণ বন্ধ করার জন্য হাতধোয়া একটি চাবিকাঠি হয়, তবে বিশ্বাসী সম্প্রদায়ের সদস্যরা যারা প্রার্থনা করার আগে দিনে ৫ বার নিয়ম মেনে হাত ধৌত করেন, তাদের কাছে আমাদের বাকি সবাইকে শিক্ষা দেয়ার কিছু থাকতে পারে?

করোনা সংক্রমণের বিষয়ে তিনি মন্তব্য করে বলেন, দারিদ্র্য যদি মূল নির্ধারক হয় তবে আমরা ব্রিটেনের পাকিস্তানি এবং বাংলাদেশি মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে ভাইরাসটি প্রবলভাবে সংক্রমিত হওয়ার প্রত্যাশা করব।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, যুক্তরাজ্যের সংখ্যালঘু অশ্বেতাঙ্গ জনগোষ্ঠীর অঞ্চলগুলির বেশিরভাগ করোনাভাইরাস হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে, তবে এশিয়ান মুসলিম অঞ্চলগুলোর বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তা ঘটেনি। ট্রেভর লন্ডনে টাওয়ার হ্যামলেটসের উদাহরণ দিয়ে বলেন, যেখানে এক তৃতীয়াংশেরও বেশি মুসলমানের বাস এবং করোনাভাইরাসের হটস্পট দিয়ে পরিবেষ্টিত, কিন্তু করোনা সংক্রমণ থেকে মুক্ত বলে প্রতীয়মান হচ্ছে।

পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ডে এর তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির ৩৪.৫ শতাংশ গুরুতর অসুস্থ রোগী সংখ্যালঘু সম্প্রদায়গুলি থেকে এসেছে। যদিও তারা ইংল্যান্ডের জনসংখ্যার প্রায় ১৪ শতাংশ।

যুক্তরাজ্যের অভ্যন্তরীণ শহর বা শহুরে অঞ্চলগুলোর তালিকায় বিপুলসংখ্যক মুসলিম নাগরিগ আছেন। তারা করোনার মারাত্বক ঝুঁকির মধ্যে আছেন অথচ সংক্রমিত হচ্ছেন না। তালিকাতে লন্ডন এবং ম্যানচেস্টার, লুইন ব্র্যাডফোর্ড এবং লেস্টারের বিভিন্ন শহর অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। এই কারণে ট্রেভর ফিলিপ্সের প্রশ্ন, ইংল্যান্ডের করোনাভাইরাসের হটস্পটগুলিতে মুসলমানদের দিনে ৫ বার হাত ধোয়ার তাদের কঠোর নিয়মটি তাদের কম সংক্রমণের কারণ হতে পারে কি না?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: