Lionel Messi | QWC 2022 | বিশ্বকাপ দলে মেসি ছাড়া কেউই নিশ্চিত নন-ডি মারিয়া!!

Lionel Messi | QWC 2022 | বিশ্বকাপ দলে মেসি ছাড়া কেউই নিশ্চিত নন-ডি মারিয়া!!

দীর্ঘ ২৮ বছরের শিরোপা হতাশা ঘুচিয়ে টানা দুই আন্তর্জাতিক শিরোপা জিতেছে আর্জেন্টিনা। ২০২১ সালে ব্রাজিলের মাটিতে ব্রাজিলকে পরাজিত করে কোপা আমেরিকার শিরোপা ঘরে তোলার ১১ মাসের ব্যবধানে ইউরোপ চ্যাম্পিয়ন ইতালিকে ফিনালিসসিমাতে পরাজিত করে ২০২২ ফিনালিসসিমা ট্রফিটিও নিজেদের করে নিয়েছে আলবিসেলেস্তারা। ২০০৮ সালে অলিম্পিকে গোল্ড মেডেল, ২০২১ কোপা আমেরিকা শিরোপা এবং ২০২২ সালে ফিনালিসসিমা তিন বড় ইভেন্টে গোল করে আর্জেন্টিনাকে শিরোপা জিতাতে ব্যাপকভাবে সাহায্য করেছেন অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া।

২০০৮ সালে অলিম্পিকে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে লিওনেল মেসির পাস ধরে চিপ গোল করে দলকে গোল্ড মেডেল এনে দেন ডি মারিয়া। এরপর ঠিক ১৩ বছর পর ২০২১ সালে কোপা আমেরিকার ফাইনালে ব্রাজিলের বিপক্ষে রদ্রিগো ডি পলের অ্যাসিস্ট থেকে সেই চিরচেনা চিপ গোলের মাধ্যমে আর্জেন্টিনার ২৮ বছরের শিরোপা খরা কাটাতে সাহায্য করেন পিএসজির সাবেক এই তারকা। ১১ মাস পর ফিনালিসসিমাতে ইতালির বিপক্ষে লাউতারো মার্টিনেজের বাড়ানো বল পেয়ে আবারো সেই চিপ গোলে দলের ব্যবধান বাড়িয়ে আরো এক আন্তর্জাতিক শিরোপা জিততে দারুণভাবে সহায়তা করেছেন অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া।

তিন ফাইনালে তিন বড় গোল করে দলকে শিরোপা জেতানোর পর থেকে আর্জেন্টাইন ভক্তরা হিসাব কষতে শুরু করেছে ডি মারিয়া থাকলে হয়তো ২০১৪ সালেই বিশ্বকাপ শিরোপা ধরা দিত আর্জেন্টিনার হাতে। ২০১৪ সালে বিশ্বকাপ ফাইনালে জার্মানির কাছে হারের পর লিওনেল মেসির কন্ঠেও ডি মারিয়াকে না পাওয়ার আক্ষেপ ঝরেছিলো বেশ কয়েকবার।

তবে এবার বড় দুই ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে দুই আন্তর্জাতিক শিরোপা এনে দিলেও অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া মনে করছেন বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা দলে তার জায়গা অনিশ্চিত।

গেল মৌসুমে লিওনেল মেসির সঙ্গে পিএসজিতে একসঙ্গে খেলেছেন ডি মারিয়া। তবে মৌসুম শেষেই পিএসজিকে বিদায় বলে দিয়েছেন এই তারকা। বিশ্বকাপের আর বাকি মাত্র পাঁচমাস। এখনো নতুন কোনো দলের সঙ্গে চুক্তি করেননি ডি মারিয়া যার ফলে নতুন দলে যোগ দিয়ে সে দলের খেলোয়াড়দের সঙ্গে খাপখাওয়ানো এবং সেখানকার পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নিয়ে পারফর্ম করে বিশ্বকাপে জাতীয় দলে কি আদৌ সুযোগ পাবেন কিনা তিনি তা নিয়ে নিজের মধ্যেই সংশয় রয়েছে ডি মারিয়ার।

এ প্রসঙ্গে ডি মারিয়া বলেন, আমাকে নতুন ক্লাবে যেতে হবে, নতুন করে খাপখাওয়াতে হবে। ভালো খেলতে হবে। খেলাটা উপভোগ করতে হবে। বিশ্বকাপের চার মাস আগে এগুলো ঠিকঠাক করতে পারব কি না, এখনো জানি না।

তবে দলে নিজের অনিশ্চয়তার কথা বলতে গিয়ে মারিয়া এটাও জানিয়ে দিলেন যে আলবিসেলেস্তা দলে শুধুমাত্র লিওনেল মেসির জায়গাটাই পাকা। আর কোনো খেলোয়াড়েরই দলে জায়গাটা স্থায়ী নয়।

এ প্রসঙ্গে টিঅ্যান্ডটি স্পোর্টসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া বলেন, ‘ও-ই (মেসি) একমাত্র খেলোয়াড়, যার বিশ্বকাপ দলে জায়গা পাকা’।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Enable Notifications    OK No thanks