২ বৃদ্ধকে কান ধরানো সেই এসিল্যান্ডের বিরুদ্ধে মামলা করবেন ব্যারিস্টার সুমন

গতকাল মাস্ক না পারায় ৩ বৃদ্ধের কান ধরিয়ে ছবি তোলার ঘটনায় ফেইসবুক জুড়ে সমালোচনার ঝড় বইছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে যশোরের.

গতকাল মাস্ক না পারায় ৩ বৃদ্ধের কান ধরিয়ে ছবি তোলার ঘটনায় ফেইসবুক জুড়ে সমালোচনার ঝড় বইছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে যশোরের মনিরামপুরের চিনাটোলা বাজার এই ঘটনা ঘটান উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইমা হাসান। এরপর থেকেই এই সহকারী কমিশনারের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় বইছে।

বিষয়টি এসেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কাছেও। এরপর সাইমা হাসানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন জনপ্রশাসন সচিব। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন সরকারি ছুটির পর তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে সহকারি কমিশনার (ভূমি) সাইমা হাসানের বিরুদ্ধে।

এদিকে এই ঘটনার পর সরকারি ওয়েবসাইটের কভার ফটো পরিবর্তন করে দিয়ে সেই মহিলার ছবি আপলোড করে দিয়েছে হ্যাকাররা। এছাড়াও গোটা ফেসবুকের পাতায় এই সহকারি কমিশনার কে নিয়ে সমালোচনা করছে সাধারণ জনগণ।

এদিকে সহকারি কমিশনার সাইমা হাসানের বিরুদ্ধে এবার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করবেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। তিনি নিজেই গণমাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ প্রসঙ্গে ব্যারিস্টার সুমন বলেন তারা বয়স্ক মানুষ। তাদের কোন অভাব অভিযোগ না শুনে, প্রয়োজন না বুঝে কান ধরে উঠবস করিয়েছেন এসিল্যান্ড। এসিল্যান্ড নিচেই এই দৃশ্য ক্যামেরাবন্দি করেছেন। ওই ভিডিও এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। এটা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অপরাধ, তা নিয়ে বসে থাকা যায় না।

এদিকে স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাস মোকাবেলায় জনসমাগম নিয়ন্ত্রণের যশোরের মনিরামপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সহকারি কমিশনার (ভূমি) সায়েইমা হাসানের নেতৃত্বে শুক্রবার ২৭ মার্চ বিকেল থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালত উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায়।

বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে চিনাটোলা বাজারে অভিযানের সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের সামনে পড়েন প্রথমে দুই বৃদ্ধ এর মধ্যে একজন বাইসাইকেল চালিয়ে আসেন, অপরজন রাস্তার পাশে কাঁচাবাজারে তরকারি বিক্রি করছিলেন।তাদের মুখে মাস্ক ছিলনা।

এসময় পুলিশ ওই বৃদ্ধকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করলে সায়েইমা হাসান শাস্তি হিসেবে তাদের কান ধরে উঠবস করানো। শুধু তাই নয় এসময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিজেই তার মোবাইল ফোনে চিত্রটি ধারণ করেন। পরবর্তীতে এটি ভাইরাল হয়ে যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: