যেভাবে ঘরে বসেই করোনা হয়েছে কিনা বুঝবেন

এই পোস্ট লেখার আগ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত বাংলাদেশের রোগীর সংখ্যা ছিল ১৭জন। মার্চের ১৮ তারিখ সিডিসির প্রকাশিত তথ্য অনুসারে ১.

এই পোস্ট লেখার আগ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত বাংলাদেশের রোগীর সংখ্যা ছিল ১৭জন। মার্চের ১৮ তারিখ সিডিসির প্রকাশিত তথ্য অনুসারে ১ লক্ষ ৭০হাজার+ লোক পৃথিবীর ১৫০+ দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। যার মধ্যে মারা গিয়েছে ৭৮০০+ লোক।

করোনা নিয়ে আতংকে সবাই। করোনা সন্দেহে হাসপাতালে ভীড় করছে অনেক মানুষ। আবার ডাক্তাররাও আমাদের দেশে পর্যাপ্ত প্রটেকশন ইকুয়েপমেন্ট না পাওয়ায়, সব রুগিকে দ্রুত চিকিৎসাও দিতে পারছেন না।

ঘরে বসেই করোনা পরিস্থিতি পরীক্ষা করে নিতে দেব শেঠি একটি বার্তা প্রকাশ করেছেন যা সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়।

সেখানে তিনি বলেন :-  ‘যদি কারো ফ্লু বা সর্দি থাকে, প্রথমে নিজেকে আইসোলেট করে লক্ষণ ভালো করে পর্যবেক্ষণ করতে হবে। প্রথম দিন শুধু ক্লান্তি আসবে। তৃতীয় দিন হালকা জ্বর অনুভব হবে। সঙ্গে কাশি ও গলায় সমস্যা হবে। পঞ্চম দিন পর্যন্ত মাথা যন্ত্রণা। পেটের সমস্যাও হতে পারে। ষষ্ঠ বা সপ্তম দিনে শরীরে ব্যথা বাড়বে এবং মাথা যন্ত্রণা কমতে থাকবে। তবে ডায়েরিয়ার লক্ষণ দেখা দিতে পারে। পেটের সমস্যা থেকে যাবে।

এবার খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অষ্টম ও নবম দিনে সব লক্ষণই চলে যাবে। তবে সর্দির প্রভাব বাড়তে থাকে। এর অর্থ আপনার প্রতিরোধক্ষমতা বেড়েছে এবং আপনার করোনা-আশঙ্কার প্রয়োজন নেই’।

‘‘এমন সময়ে আপনার করোনা পরীক্ষার প্রয়োজন নেই। কারণ আপনার শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে গেছে। যদি অষ্টম বা নবম দিনে আপনার শরীর আরো খারাপ হয়, করোনা হেল্পলাইনে ফোন করে অবশ্যই পরীক্ষা করে নিন।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: