করোনাতে চরম বিপর্যয়ে পড়তে যাচ্ছে চট্রগ্রাম!! কিন্ত কি কারণে?

করোনাভাইরাস যা চীন ছাড়িয়ে বর্তমানে সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। এই ভাইরাসে এ পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা প্রায় ৭ হাজার ছাড়িয়েছে এবং আক্রান্ত.

করোনাভাইরাস যা চীন ছাড়িয়ে বর্তমানে সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। এই ভাইরাসে এ পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা প্রায় ৭ হাজার ছাড়িয়েছে এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৮২ হাজার ৭০০ জন।

করোনার প্রভাব দিন দিন বেড়েই চলেছে। করোনার কারণে যেনো থমকে যাচ্ছে পুরো বিশ্ব। চীনের পর ইটালি ও স্পেনে এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা এবং মৃত্যুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি।

ইউরোপের দেশ গুলো ছাপিয়ে এবার করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বাংলাদেশেও। সোমবার (১৬ মার্চ) পর্যন্ত বাংলাদেশে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা ছিলো ৮ জন। কিন্তু আজ মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) এ সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১০ এ। যুক্তরাষ্ট্র ও ইটালি ফেরত দুইজন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে৷ করোনার প্রভাব ঠেকাতে ইতিমধ্যে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে এবং সকল খেলা ও সিনেমা হল গুলোও বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে সরকার।

তবে জানা যায়, বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছে চট্রগ্রাম বিভাগ। করোনাভাইরাস শনাক্ত করার কোনো কিটস এখন পর্যন্ত বন্দর নগরী চট্রগ্রামে নেই। যার কারণ নীতিগত সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছেন চট্রগ্রামের সিভিল সার্জন শেখ ফজলে রাব্বি।

করোনাভাইরাস চিকিৎসায় নিয়োজিত চিকিৎসকদের নিরাপত্তার প্রয়োজনীয় উপকরণ অভাবে বিকল্প সরঞ্জাম ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

চট্রগ্রামের সিভিল সার্জন ডা.ফজলে রাব্বি জানান, চট্রগ্রাম জেলা সর্বোচ্ছ ঝুঁকির মধ্যে। কারণ এখানে বিমান বন্দর ও সমুদ্র বন্দর আছে। আমাদের প্রথম কাজ এন্ট্রি পয়েন্টে আক্রান্ত কেউ থাকলে চিহ্নিত করতে পারা। শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে একটি থার্মাল স্ক্যানার থাকলেও বন্দরে এখনো হ্যান্ডহেল্ড ইনফ্রারেড থার্মোমিটার দিয়ে শরীরের তাপমাত্রা পরিমাপ করা হচ্ছে। তবে দুটোই সমান উপযোগী। এ পর্যন্ত চট্রগ্রামে মোট ২৯ জন হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন।

করোনার প্রস্তুতি সম্পর্কে সিভিল সার্জন বলেন, দয়া করে উন্নত দেশের সাথে আমাদের দেশের প্রস্তুতির তুলনা করবেন না। আমাদের যা কিছু আছে শেষবিন্দু দিয়ে আমরা সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করছি। আমাদের সম্পদের সীমাবদ্ধতা আছে। তবে সব ধরনের প্রস্তুতি আমরা নিচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: