ব্রেকিং নিউজ!! রাজধানীর ৫২ এলাকা লকডাউনের ঘোষণা!

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাংলাদেশে বর্তমানে ভয়ংকর আকার ধারণ করেছে। দিন দিন বাড়ছে আক্রান্ত রোগী এবং মৃতের সংখ্যা। দেশের এমন অবস্থায় রাজধানী.

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাংলাদেশে বর্তমানে ভয়ংকর আকার ধারণ করেছে। দিন দিন বাড়ছে আক্রান্ত রোগী এবং মৃতের সংখ্যা।

দেশের এমন অবস্থায় রাজধানী ঢাকার ৫২ টি এলাকা লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এর আগে নারায়ণগঞ্জে সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ার কারণে পুরো নারায়ণগঞ্জকে লকডাউনে ঘোষণা দিয়েছে সরকার। লকডাউন করা এসব এলাকা থেকে কেউ বের হতে পারবে না এবং কেউ প্রবেশ করতে পারবে না।

আইএসপিআর জানিয়েছে, করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কার্যক্রম জোরদার করতে বুধবার (৮ এপ্রিল) থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ জেলাকে সম্পূর্ণরূপে অবরুদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে জরুরী পরিসেবা যেমনঃ- চিকিৎসা, খাদ্যসামগ্রি সরবরাহ এর আওতায় পড়বে না। অসামরিক প্রশাসন, সশস্ত্র বাহিনী ও আইন শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনী স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে সমন্বয়ের মাধ্যমে সম্মিলিতভাবে এই দায়িত্ব পালন করবে।

এছাড়াও রাজশাহী, পটুয়াখালী, টাঙ্গাইল ও মেহেরপুর জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করেছে স্থানীয় প্রশাসন। তবে চালু থাকবে জরুরী সেবা।

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে কয়েকটি এলাকায় করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর ওই এলাকায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে মোহাম্মদপুরে রাজিয়া সুলতানা রোড থেকে ১ জন, তাজমহল রোডে একজন মৃত, তাজমহল রোডে কৃষি মার্কেটের রোডের মুখ, বাবর রোড ১ জন এবং বাছিলা উত্তর মোরা এলাকায় ৩ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। যার ফলে লকডাউনে আছে এলাকাগুলো।

ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার মাহসুদুর রহমান জানিয়েছেন, রাজধানীতে সংক্রমণের শুরুর দিকে মিরপুরে টোলারবাগে রোগী পাওয়ার পর ওই এলাকা আগে থেকেই লডডাউন করা হয়েছে। এরপর একে একে পুরান ঢাকার খাজা দেওয়ান লেনের ২০০ ভবন, মোহাম্মদপুর ও আদাবরের ৬ টি এলাকা, মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেটের সামনে, তাজমহল রোড মিনার মসজিদ এলাকা, রাজিয়া সুলতানা রোড বাবর রোডের একাংশ, বাছিলা ও আদাবরের কয়েকটা বাড়ি ও বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা থেকে এক নারীর করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হওয়ার পর থেকে একটি রাস্তা লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

এদিকে ঢাকা মহানগরের পুলিশের সূত্রে জানা যায়, গতকাল পর্যন্ত যেসব এলাকা লকডাউন করা হয় তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো-মহাখালীর আরজত পাড়ার একটি ভবণ, বসুন্ধরা এলাকার অ্যাপোলো হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকা, বসুন্ধরা ডি ব্লকের রোড নং-৫, বুয়েট এলাকার একাংশ, মিরপুর টোলারবাগ, ইস্কাটনের দিলু রোডের একাংশ, উত্তরা ১৪ নাম্বার সেক্টরের একটি সড়ক, কাজি পাড়ার এক অংশ, সেন্ট্রাল রোডের কিছু অংশ, মিরপুর ১০ এর ৭ নং রোড, সোয়ারীঘাটের কিছু অংশ, পল্টনের কিছু অংশ, আশকোনার কিছু অংশ, সেনপাড়ার একটি অংশ, নয়াটোলার এক অংশ, মীর হাজারিবাগের একাংশ, নন্দিপাড়া ব্রিজের পাশের এলাকা, মিরপুর সেকশন ১১ এর একটি সড়ক, লালবাগের খাজা দেওয়ান রোডের একটি অংশ, ধানমন্ডি ৬ এর একটি অংশ, মিরপুর-১৩ ডেসকো কোয়ার্টার, উত্তর টোলারবাগ, দক্ষিণ যাত্রাবাড়ীর কুতুবখালী, পশ্চিম মানিকনগর, নারিন্দার কিছু এলাকা, গ্রীন লাইফ হাসপাতাল এলাকা, ইসলামপুরের একাংশ এসব এলাকা লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। থাকবে পুলিশি পাহারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: