Cricket News

কুশাল পেরেরার সেঞ্চুরিতে রানের চূড়ায় উঠেছে শ্রীলঙ্কা!! আগুনঝরা বোলিং তাসকিন আহমেদের!

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। প্রথম দুই ম্যাচে দূর্দান্তভাবে জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। ফলে ইতিমধ্যে সিরিজ জয় নিশ্চিত করে রেখেছে বাংলাদেশ। তাই সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে লঙ্কানদের হোয়াইটওয়াশ করার লক্ষ্যে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। অন্যদিকে হোয়াইটওয়াশ এড়ানোই মূল লক্ষ্য থাকবে শ্রীলঙ্কার।

এই ম্যাচে প্রথমে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক কুশাল পেরেরা। এই ম্যাচে একাদশে চার পরিবর্তন এনেছে শ্রীলঙ্কা। উইকেটরক্ষক হিসেবে নিরোশান ডিকভেলাকে ফেরানোর পাশাপাশি তিন অভিষেক ঘটিয়েছে লঙ্কানরা। অন্যদিকে একাদশে দুই পরিবর্তন এনেছে বাংলাদেশ। প্রথম দুই ম্যাচে ব্যাট হাতে ব্যর্থতার পরিচয় দেওয়া লিটন দাসের পরিবর্তে একাদশে জায়গা পেয়েছেন তরুণ ওপেনার নাঈম শেখ এছাড়াও মাথায় আঘাত পাওয়া মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের বদলে একাদশে জায়গা পেয়েছেন তাসকিন আহমেদ।

শুরুতে ব্যাটিং করতে নেমে প্রথম দুই ম্যাচ থেকে ভিন্ন এক শুরু করেছে শ্রীলঙ্কার দুই ওপেনার কুশাল পেরেরা ও গুনাথিলাকা। বাংলাদেশের বোলারদের উপর চড়াও হতে থাকে এই দুইজন। ওপেনিংয়ে এই দুইজন মিলে গড়েন ৮২ রানের জুটি। তাদের এই জুটি ভেঙে বাংলাদেশ শিবিরে স্বস্তি ফিরিয়ে দেন তাসকিন আহমেদ। নিজের প্রথম ওভারে ১২ রান দিলেও দ্বিতীয় ওভার করতে এসে জ্বলে উঠেন তাসকিন। একি ওভারে তুলে নেন একে গুনাথিলাকা ও পাথুম নিসাঙ্কার উইকেট। ৩৩ বলে ৫ চার ১ ছয়ে ৩৯ রান করে তাসকিনের বলে বোল্ড হয়ে আউট হন ধানুশকা গুনাথিলাকা। এর ঠিক তিন বল পরেই পাথুম নিসাঙ্কাকে মুশফিকের হাতে ক্যাচ বানিয়ে সাজঘরে পাঠান তাসকিন। তাসকিনের একি ওভারে দুই উইকেট হারিয়ে কিছুটা বিপদে পড়ে শ্রীলঙ্কা।

তবে তারপরেও থেমে থাকেননি লঙ্কান অধিনায়ক কুশাল পেরেরা। নিজের ব্যাটিং তান্ডব চালিয়ে যান এই ওপেনার। কুশাল মেডিসকে সাথে নিয়ে গড়েন ৬৯ রানের জুটি। ভয়ংকর হয়ে উঠা সেই জুটিও ভাঙেন তাসকিন আহমেদ। ৩৬ বলে ১ ছয়ে ২২ রান করে তাসকিনের বলে ক্যাচ তুলে আউট হয় মেন্ডিস।

তারপরেও শ্রীলঙ্কাকে চাপে ফেলতে পারেনি বাংলাদেশের বোলাররা। ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার সাথে আবারো লম্বা জুটির পথে পা দিতে থাকেন কুশাল পেরেরা। এর সাথে সাথে তুলে নেন নিজের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ৬তম সেঞ্চুরি। অধিনায়ক হিসেবে এটিই কুশাল পেরেরার প্রথম শতক। ১২২ বলে ১১ চার ১ ছয়ে ১২০ রান করা বিধ্বংসী সেই কুশাল পেরেরাকে সাজঘরে ফিরান শরিফুল ইসলাম। শরিফুলের বলে মাহমুদুল্লাহর হাতে ক্যাচ তুলে আউট হন পেরেরা। তবে সেঞ্চুরি করা পেরেরাকে ৯৯ রানেই আউট করতে পারতেন মুস্তাফিজুর রহমান৷ কিন্তু ভাগ্য হয়তো ফিজের সাথে ছিল না। মুস্তাফিজের কাটারে ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন কুশাক পেরেরা তবে সেই ক্যাচ হাতছাড়া করে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

নিরোশান ডিকভেলা ও ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার জুটি বেশিদূর গড়ায়নি। ৯ বলে ৭ রান করা ডিকভেলাকে রান আউট করেন শরিফুল ইসলাম। ২৩১ রানে ৫ উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা। দলীউ ২৬৬ রানে ওয়ানিন্দু হাসরাঙ্গাকে সাজঘরে ফিরান তাসকিন আহমেদ।

এরপর ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার অর্ধশতকে ভর করে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ২৮৬ রানের বিশাল রানের সংগ্রহ তুলেছে শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশের হয়ে ৪ টি উইকেট শিকার করেছেন তাসকিন আহমেদ। এছাড়াও পেসার শরিফুল ইসলাম তুলে নিয়েছেন ১ টি উইকেট।

Bangladesh Vs Sri Lanka Third Odi, Bangladesh Vs Sri Lanka Odi Series 2021, Taskin Ahmed, Kushal Perera

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this:
Enable Notifications    OK No thanks