ইতিহাস গড়ে প্রথমবারের মতো অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে বাংলাদেশ!!

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ এবং নিউজিল্যান্ড। টসে জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ। ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশের বোলিং তোপে পড়ে.

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ এবং নিউজিল্যান্ড। টসে জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ।

ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশের বোলিং তোপে পড়ে ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২১১ রান তোলে নিউজিল্যান্ডের যুবারা। নিউজিল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্ছ রান করেন হুইলার গ্রিনাল। ৮৩ বলে ৭৫ রানের ইনিংস খেলেন তিনি৷

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। প্রতিরোধ গড়ে তুলে তৌহিদ হৃদয় ও মাহমুদুল হাসান জয়। দলীয় ১০০ রানের সময় ৪৭ বলে ৪০ রান করে হৃদয় আউট হলেও ধীরে সুস্থে খেলতে থাকেন মাহমুদুল হাসান জয়। দূর্দান্তভাবে খেলে যান জয়। শাহাদাত হোসেনের সাথে জুটি বেঁধে খেলতে থাকেন জয়। ৭৮ বলে দূর্দান্ত একটি হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন মাহমুদুল হাসান জয়। ৫ চারে অর্ধশতক পূরণ করেন এই তরুণ।

অর্ধশতকের পরেও জয়ের রানের চাকা ঘুরতে থাকে। ৭৯.৩৬ স্ট্রাইক রেটে ব্যাট করা মাহমুদুল হাসান জয় গুটি গুটি পায়ে এগোতে থাকেন সেঞ্চুরির কাছে। তার সাথে সাথে দলকেও নিয়ে যায় জয়ের দ্বারপ্রান্তে।

দলের যখন প্রয়োজন মাত্র ১১ রান ঠিক তখনই অসাধারণভাবে ১২৬ বলে সেঞ্চুরি তুলে নেন মাহমুদুল হাসান জয়৷ ১৩ চারে সেঞ্চুরি করেন এই প্রতিভাবান তরুণ। এর পরের বলেই আউট হয়ে যান মাহমুদুল হাসান জয়।

ফলে ১২৭ বলে ১০০ রানের অসাধারণ এক ইনিংস খেলে আউট হন মাহমুদুল।

এরপর জয় পেতে আর বেগ পেতে হয়নি বাংলাদেশের যুবাদের৷ শাহাদাত হোসেন ও শামিম হোসেন মিলে জয় তুলে নেয়।

এর মাধ্যমে ইতিহাস গড়ে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। নিউজিল্যান্ডেকে ৬ উইকেটে হারিয়ে ইতিহাসের প্রথমবারের মতো যুব বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠলো বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্ছ ৩ টি উইকেট শিকার করেন শরিফুল ইসলাম। অন্যদিকে শামিম হোসেন এবং হাসান মুরাদ ২ টি করে উইকেট তুলে নেয়। রাকিবুল হাসান নেয় ১ টি উইকেট।

বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার দ্বিতীয় সেমিফাইনালের সংক্ষিপ্ত স্কোর ঃ-

নিউজিল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ ঃ- ২১১/৮ (৫০ওভার) গ্রিনঅল ৭৫*,লিডস্টোন ৪৪, লেলম্যান ২৪।
শরিফুল ১০-২-৪৫-৩, শামিম ৬-১-৩১-২, মুরাদ ১০-১-৩৪-২, রকিবুল ১০-১-৩৫-১

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ঃ- ২১৫/৪ (৪৪.১ ওভার)
মাহমুদুল ১০০, হৃদয় ৪০, শাহাদাত ৪০, ইমন ১৪, আকবর ৫*, তামিম ৩

হ্যানকক ৭-০-৩১-১, ক্লার্ক ৯-০-৩৭-১

ফলঃ বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল ৬ উইকেটে জয়ী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: