Bangladesh beat India by 5 wicket and seal the series : মিরাজের সেঞ্চুরি! এবাদত – সাকিবদের বোলিং তোপে উড়ে গেল ভারত!

Bangladesh beat India by 5 wicket and seal the series : মিরাজের সেঞ্চুরি! এবাদত – সাকিবদের বোলিং তোপে উড়ে গেল ভারত!

দ্বিতীয় ওয়ানডেতে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ভারতকে হারিয়ে সিরিজ জিতে নিল বাংলাদেশ। মিরাজ,মাহমুদুল্লাহ,মুস্তাফিজ ও এবাদতদের বীরত্বে ভারতকে ৫ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ।

এদিন শুরুতে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ। শুরুতে ব্যাট করতে নেমে উমরান মালিক ও সিরাজদের গতির কাছে হুমড়ি খেয়ে পড়েছিল বাংলাদেশের ব্যাটাররা। দলীয় ৬৯ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে বাংলাদেশ।

একে একে বিজয়, লিটন, শান্ত, সাকিব, আফিফ ও মুশফিকদের সাজঘরে ফেরায় উমরান মালিক, মোহাম্মদ সিরাজ ও ওয়াশিংটন সুন্দররা।

মাত্র ৬৯ রানেই ৬ উইকেট হারিয়ে মুখ থুবড়ে পড়া বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে হাল ধরেছেন মিরাজ ও মাহমুদুল্লাহ। দুজন মিলে গড়েন রেকর্ড গড়া ১৪৮ রানের জুটি। ৬৯ রান থেকে এ দুজন মিলে বাংলাদেশের দলীয় রান নিয়ে যান ২১৭ তে। ৯৬ বলে ৭৭ রান করে আউট হয় মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

রিয়াদ আউট হলেও থেমে থাকেনি বাংলাদেশের রানের চাকা। নাসুম আহমেদকে সঙ্গে নিয়ে দলের রান বাড়াতে থাকেন মেহেদী হাসান মিরাজ। তাকে সঙ্গ দেওয়া নাসুমও তুলোধুনো করেন ভারতীয় বোলারদের। দুজন মিলে শেষের দিলে গড়েন ২৩ বলে ৫৪ রানের অপরাজিত জুটি।

ইনিংসের শেষ বলে এক রান নিয়ে নিজের ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি তুলে নেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ৮৩ বলে ৮ চার ৪ ছয়ে ১০০ রানে অপরাজিত থাকেন মিরাজ অন্যদিকে ২ চার ১ ছয়ে ১১ বলে ১৮ রান করে অপরাজিত থাকেন নাসুম আহমেদ। ফলে বাংলাদেশের দলীয় রান দাঁড়ায় ৭ উইকেট হারিয়ে ২৭১ রানে।

জবাবে এই রান তাড়া করতে নেমে দলীয় ৬৫ রানেই গুটিয়ে যায় বিরাট কোহলি, শিখর ধাওয়ান, ওয়াশিংটন সুন্দর ও লোকেশ রাহুল। মেহেদী হাসান মিরাজ, এবাদত হোসেন, সাকিব আল হাসানদের বোলিং তোপে একে একে চার উইকেট হারিয়ে ভুগতে থাকে ভারত।

ব্যাটিংয়ে ভুগতে থাকা ভারতের ব্যাটিংয়ে হাল ধরেন শ্রেয়াস আয়ার অক্ষর প্যাটেল। দুজন মিলে গড়েন ১০৭ রানের জুটি। দলীয় ১৭২ রানে ১০২ বলে ৬ চার ৩ ছক্কায় ৮২ রান করা শ্রেয়াস আয়ারকে আউট করেন মিরাজ। তার উইকেটের পর অক্ষর প্যাটেলকেও আউট করে দেন এবাদত হোসেন। ৫৬ বলে ৫৬ রান করে আউট হন অক্ষর প্যাটেল। এর শার্দুল ঠাকুর ও দিপক চাহারকে সাজঘরে ফিরান সাকিব আল হাসান ও এবাদত হোসেন।

শেষের দিকে ব্যাটিংয়ে নামেন শুরুতে ইঞ্জুরিতে পড়া ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মা। নেমেই ভয়ংকর রূপ ধারণ করেন রোহিত। মোহাম্মদ সিরাজকে সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে যেতে থাকে জয়ের দিকে।

ইনিংসের ৪৯তম ওভার করতে আসেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। সেই ওভারে একে একে রোহিতের দুই ক্যাচ ছেড়ে দেন এবাদত হোসেন ও এনামুল হক বিজয়। শেষ ওভারে ভারতের প্রয়োজন ছিল ২০ রান। সেই ওভার করতে আসেন মুস্তাফিজুর রহমান। ওভারের প্রথম বলে কোনো রান নিতে পারেননি রোহিত। তবে এরপর টানা দুই চার মারেন রোহিত। এরপরের বল ডটবল দেন ফিজ শেষ দুই বলে ভারতের প্রয়োজন ছিল ১২ রানের। ওভারের পঞ্চম বলে এক ছয় মারেন রোহিত। তবে শেষ বলে মুস্তাফিজের কাটারের সামনে পরাস্ত ভারতীয় অধিনায়ক।

ফলে বাংলাদেশ পায় মধুর ৫ রানের জয়।

বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট শিকার করেন এবাদত হোসেন। এছাড়াও মেহেদী হাসান মিরাজ ও সাকিব আল হাসান ২ টি ও মুস্তাফিজুর রহমান ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ পান ১ টি করে উইকেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Enable Notifications OK No thanks