Cricket News

সাইফের সেঞ্চুরি, ইমরুল কায়েস ও তুষার ইমরানের আক্ষেপ!!

আজ (২২ মার্চ, সোমবার) থেকে মাঠে গড়িয়েছে ২২তম বঙ্গবন্ধু জাতীয় ক্রিকেট লিগ (এনসিএলের) প্রথম রাউন্ডের খেলা। চারটি ভিন্ন ভেন্যুতে দুই স্তরে মোট ৮ দল নেমেছে মাঠে। করোনার কারণে দীর্ঘ বিরতির পর ঘরোয়া ক্রিকেট মাঠে ফেরার দিন ব্যাট হাতে আলো ছড়িয়েছেন সাইফ হাসান ও ইমরুল কায়েস।

এদিন ব্যাট হাতে আলো ছড়ালেও ১০ রানের আক্ষেপে পুড়েছে ইমরুল কায়েস। ব্যাট হাতে তুলেছেন ৯০ রান। ১০ রানের আক্ষেপ নিয়ে এদিন সাজঘরে ফিরেন ইমরুল কায়েস। খুলনা বিভাগের হয়ে এদিন ১২৭ বল মোকাবিলায় ১০ চার এবং ২ ছক্কায় এই নান্দনিক ইনিংসটি খেলেন ইমরুল কায়েস। কায়েসের পর খুলনার হয়ে নান্দনিক আরো একটি ইনিংস খেলেন তুষার ইমরান। হাফসেঞ্চুরি হাঁকানোর পর মাত্র ১ রান দূরে থাকতে ৯৯ রানে রান আউটের শিকার হয়ে সেঞ্চুরি না পাওয়ার আক্ষেপে পুড়ে সাজঘরে ফিরেন তুষার। তার ঝলমলে এই ইনিংসটি সাজানো ছিল ১৩ চারে।

প্রতিবেদন লেখার সময় খুলনা বিভাগীয় দলের সংগ্রহ ৬ উইকেট হারিয়ে ২৯৭ রান। ক্রিজে অপরাজিত আছেন নাহিদুল ইসলাম ১৫ রানে ও মইনুল ইসলাম।

অন্যদিকে আরেক ম্যাচে বিকেএসপির ৩ নম্বর গ্রাউন্ডে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনারকে হারায় ঢাকা বিভাগীয় দল। তবে সেই ধকল বেশ ভালোভাবেই সামাল দেন সাইফ হাসান। রংপুর বিভাগীয় দলের বোলারদের বিপক্ষে এদিন সাইফ-অঙ্কনের ব্যাটে প্রতিরোধ গড়ে তুলে ঢাকা বিভাগীয় দল। ৭৯ রানের জুটি গড়ে এই দুজন। ৯১ বলে ৬ চারে ৪৭ রান করে আউট হয়ে যান মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন। মাহিদুল আউট হলেও নিজের ছন্দে খেলেন সাইফ হাসান।

দূর্দান্ত ছন্দে খেলতে থাকা সাইফ হাসান তুলে নেন নিজের প্রথম শ্রেণীর ক্যারিয়ারের পঞ্চম শতক।

প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ঢাকা বিভাগীয় দলের সংগ্রহ ৮ উইকেট হারিয়ে ২৯০ রান।

অন্যদিকে বরিশাল বিভাগীয় স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করতে নেমে দ্রুত উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে বরিশাল বিভাগীয় দল। ১৩০ রানের আগেই ৫ উইকেটের পতন ঘটে ফজলে রাব্বির অধিনায়কত্বে খেলা বরিশাল বিভাগীয় দল। বরিশালের হয়ে ওপেনিংয়ে নেমে ৪৮ রানের ইনিংস খেলে আউট হন মোহাম্মদ আশরাফুল। ১৩৪ বলে ৬ চারে এই ইনিংস খেলেন আশরাফুল।

প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বরিশাল বিভাগীয় দল ২৪১ রানে অলআউট হয়ে যায়।

রাজশাহীর শহিদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নামে মমিনুল হকের অধিনায়কত্বে খেলা চট্রগ্রাম বিভাগীয় দল। এদিন ব্যাট করতে নেমে টপ অর্ডারে ব্যর্থ হয়েছেন মমিনুল হক ও অভিষেক হওয়া পারভেজ হোসেন ইমন। পরপর উইকেট হারিয়ে খেই হারানো চট্রগ্রামকে টেনে তুলেছেন ইয়াসির আলী রাব্বি। পাঁচে ব্যাটিং করতে নেমে ১১৯ বলে ৯ চার ১ ছয়ে ৬৩ রানের ঝলমলে এক ইনিংস খেলেন রাব্বি। তাকে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন দিপু।

প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত চট্রগ্রাম বিভাগীয় দলের সংগ্রহ ২৪৩ রান ৬ উইকেট হারিয়ে। ক্রিজে অপরাজিত আছেন দিপু রানে অন্যদিকে ৫ রানে অপরাজিত আছে মেহেদী হাসান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this:
Enable Notifications    OK No thanks