Argentina beat Australia and reached to the quarter final : মেসি – আলভারেজের জাদুতে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা!

Argentina beat Australia and reached to the quarter final : মেসি – আলভারেজের জাদুতে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা!

লিওনেল মেসি ও জুলিয়ান আলভারেজের জাদুতে নক আউট পর্বে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২-১ গোলের জয় তুলে নিয়েছে আর্জেন্টিনা। শ্বাসরুদ্ধকর এই ম্যাচ জয়ের মাধ্যমে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে আলবিসেলেস্তারা। কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ডস।

এদিন ম্যাচের প্রথম ২০ মিনিট কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি লিওনেল মেসিরা। বার বার চেষ্টা চালালেও অস্ট্রেলিয়ান ডিফেন্ডারদের কাছে পরাস্ত হয়েছে আলবিসেলেস্তারা। তবে নিজেদের গুছিয়ে নিয়ে আস্তে আস্তে ছন্দে ফিরে আসে লিওনেল স্কালোনির দল।

ম্যাচের ৩৫তম মিনিটে অস্ট্রেলিয়ার ডি-বক্সে নিকোলাস ওতামেন্ডির সুক্ষ্ম পাস পেয়ে গড়ানো শটের মাধ্যমে গোল করেন লিওনেল মেসি। ফলে ১-০ গোলে এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা।

এই গোলটিই ছিল বিশ্বকাপের নক আউট পর্বে লিওনেল মেসির প্রথম গোল। এছাড়াও বিশ্বকাপে আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি ডিয়াগো ম্যারাডোনার ৮ গোলের রেকর্ড ভেঙে দিয়েছেন লিওনেল মেসি। বর্তমানে বিশ্বকাপে লিওনেল মেসির গোল সংখ্যা ৯ টি। যা দ্বিতীয় আর্জেন্টাইন হিসেবে সর্বোচ্চ।

১-০ গোলে এগিয়ে থেকে প্রথমার্ধের খেলা শেষ করা আর্জেন্টিনা দ্বিতীয়ার্ধে একাধিক সুযোগ তৈরি করে। ম্যাচের ৫৭তম মিনিটে নিজেদের ভুলে গোল হজম করে অস্ট্রেলিয়া। রদ্রিগো ডি পল ও জুলিয়ান আলভারেজের মাঝখানে দাঁড়িয়ে বল ক্লিয়ার করতে যাওয়া অস্ট্রেলিয়ান গোলরক্ষককে বোকা বানিয়ে আর্জেন্টিনাকে ২-০ গোলে এগিয়ে নিয়ে যান জুলিয়ান আলভারেজ।

এরপর ২-০ গোলে চলতে থাকা ম্যাচে চরম ভুল করে বসে এঞ্জো ফার্নান্দেজ। ডি-বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া গুডউইনসের শট এঞ্জো ফার্নান্দেজের গায়ে লেগে গোলে পরিণত হয়। ফলে ব্যবধান কমায় অস্ট্রেলিয়া।

এরপর আরো ক্ষিপ্র গতিতে খেলতে থাকে অস্ট্রেলিয়া। তবে লিওনেল মেসির দেওয়া সহজ দুটি বল গোলে পরিণত করতে ব্যর্থ হন জুলিয়ান আলভারেজের বদলি হিসেবে নামা লাউতারো মার্টিনেজ।

এদিকে প্রায় সমতা টেনেই ফেলেছিল অস্ট্রেলিয়া। ম্যাচের অতিরিক্ত সময় প্রায় শেষের পথে ঠিক সে সময় আর্জেন্টিনার জালে হানা অস্ট্রেলিয়ার। ক্রস থেকে রিসিভ করা বল এক শটে জালে জড়াতে চাইলেন বদলি হিসেবে নাম কুওল। তবে তৎক্ষণাৎ আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক ইমিলিয়ানো মার্টিনেজ দূর্দান্তভাবে ঠেকিয়ে দেন সেই শট। ফলে ২-১ গোলের জয় নিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে আর্জেন্টিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Enable Notifications OK No thanks