সাকিবকে কেনো বিশ্বকাপের ফাইনালে উপস্থিত থাকতে বললো আইসিসি?তবে কি সাকিবই হতে যাচ্ছেন’ম্যান অফ দ্য টুর্নামেন্ট’?

ইংরেজি তে একটা প্রবাদ আছে ‘ওয়ান ম্যান আর্মি’। বাংলাদেশ দলের হয়ে ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে প্রবাদটির যথার্থ ভালোভাবেই বুঝিয়ে দিয়েছেন বাংলার.

ইংরেজি তে একটা প্রবাদ আছে ‘ওয়ান ম্যান আর্মি’। বাংলাদেশ দলের হয়ে ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে প্রবাদটির যথার্থ ভালোভাবেই বুঝিয়ে দিয়েছেন বাংলার রত্ন সাকিব আল হাসান। ব্যাট এবং বল হাতে বাংলাদেশের হয়ে যেনো একাই লড়ে গিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। গড়েছেন অসংখ্য রেকর্ড।

বিশ্বকাপ মঞ্চে সাকিবের রাজত্ব কেড়ে নিয়েছে ক্রিকেট বিশ্বের ভক্তদের। বাইশ গজে সাকিবের রাজত্ব দেখে ক্রিকেট বিশ্লেষকদের মুখে চলছে সাকিব বন্দনা।

২০১৯ বিশ্বকাপে ৮ ম্যাচে ২ সেঞ্চুরি ও ৫ হাফসেঞ্চুরির মাধ্যমে সাকিব করেছেন ৬০৬ রান এবং বল হাতে নিয়েছেন ১১ টি উইকেট। যা প্রমাণ রাখে কেনো তিনি বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার। আর এই কারণেই সাকিব এগিয়ে রয়েছেন বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড় হওয়ার দৌড়ে। সাকিবের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে আছেন নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন এবং ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যান জেসন রয়। কিন্তু সাকিবের চেয়ে অনেক পিছিয়ে তারা। বল হাতে ১১ টি উইকেট শিকার সাকিবকে এগিয়ে রেখেছে সকল খেলোয়াড় থেকে৷ তবে তাও শঙ্কা ছিলো সাকিবের ম্যান অফ দ্যা টুর্নামেন্টের পুরস্কার পাওয়া নিয়ে।

কিন্তু ফাইনাল ম্যাচের আগে আইসিসির কাছ থেকে সাকিবের কাছে উড়ে এলো একটি চিঠি। বিশ্বকাপের ফাইনালে সাকিবকে উপস্থিত থাকার জন্য আমন্ত্রন জানিয়েছে আইসিসি সেই চিঠির মাধ্যমে। তবে কি আইসিসির এই আমন্ত্রন ইঙ্গিত দিচ্ছে বিশ্বকাপের ‘ম্যান অফ দ্যা টুর্নামেন্টে’ সাকিবের হাতে যাওয়ার?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: